একুশ শতকের সাহিত্যিক, বুক রিভিউ

পুলক মণ্ডল রচিত ‘যে জীবন বকপক্ষীর’ বইটির রিভিউ নিয়ে, ফারহা নুর  ‘নহলী গ্র্যান্ড রিভিউ প্রতিযোগিতা‘য় অংশ নিয়ে ষষ্ঠ স্থান অর্জন করেন। ফারহা নুরের ‘যে জীবন বকপক্ষীর বুক রিভিউ’ টি নিয়েই আত্মপ্রকাশের এই আয়োজন।

বই: যে জীবন বকপক্ষীর
লেখক: পুলক মণ্ডল
পৃষ্ঠা: ১২৬
মুদ্রিত মূল্য: ২৫০/- টাকা
বর্তমান বিক্রয় মূল্যঃ ১৫০ টাকা (৪0% ছাড়) (এপ্রিল, ২০১৯)।
অনলাইন প্রাপ্তিস্থান: নহলী বুকস
রিভিউয়ারঃ ফারহা নুর

যে জীবন বকপক্ষীর বুক রিভিউ । পুলক মণ্ডল। কাহিনী সংক্ষেপ

উপন্যাসটি উত্তম পুরুষে লেখা। মধ্যবিত্ত পরিবারের খুব পরিচিত গল্পগুলোই লেখক বলেছেন নিজে অনুভব করে। মফস্বলে তারা মাহফুজ ভাইদের ভাড়া বাসায় থাকে। টানাটানির সংসারে মেহমান আসা মানে ঝামেলা। মায়ের বান্ধবী আসলো বিদেশ থেকে তার মেয়েকে নিয়ে বেড়াতে। বৃষ্টি ভেজা এক প্রহরে কৈশোরে প্রথম ছুঁয়ে দেয়া কিশোরী ছিল নওশীন। ছুটি শেষে নওশীনরা চলেও গেল। মাহফুজ ভাই হুটহাট বাসায় খেতে চলে আসে। লুনা রান্না করে। খাবার টেবিলে মাহফুজের দিকে আড় চোখে তাকায়, হাসে। বৃষ্টিস্নাত এক বিকেলে তাদের দূরত্ব মাপার চেষ্টা করে। পরিবারের বড় মেয়ে লুনার বিয়ে না হওয়া নিয়ে চিন্তায় পড়েন বাবা। কয়েকবার বিয়ে ভাঙার পরও বাবার শক্ত হাতটি সচল ছিল। শেষ বার মিথ্যে অপবাদ, অপমান মেয়ের গলায় ঝুলিয়ে বিয়ে ভাঙলো বর পক্ষ। বাবার কিনে দেয়া শাড়িটা পুড়িয়ে ফেলতে দেখে বাবার হাত কি আর সচল থাকে? ছোট মেয়েকে তার পছন্দ করা ছেলের সাথে বিয়ে দিল। সবসময় সেজেগুজে থাকা প্রাণচঞ্চল হাসিখুশী থাকা সেই ছোট মুনা সে কি সংসার জীবনে ভালোবাসায় ভালো থাকে? সংসারটা নির্জীব হয়ে যায় মায়ের অসুস্থতার জন্য। আর কখনও মাহফুজ এল না, লুনা আর আড় চোখে তাকালো না। মাহফুজ কিংবা লুনার সম্পর্ক কতটা দূরত্বের ছিল? টিউশনি করতে গিয়ে পরিচিত হওয়া অবনি মেয়েটা যে ভালোবাসার চাহনি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতো, সে কী তার প্রেমিকা হয়েছিল? কয়েক বছর পর ফিরে আসে নওশীন। নওশীন কি তাকে মনে রাখে? চুপচাপ স্বভাবের মনিরের সাফল্য, পরিবর্তন, ভেঙে পড়া, মধ্যবিত্তের চলতে থাকা বাস্তবতার গল্পগুলোই উঠে এসেছে।

যে-জীবন-বকপক্ষীর-বই-পুলক মণ্ডল-je-jibon-bokpokkir-book-pulok-mondol

যে জীবন বকপক্ষীর – পুলক মণ্ডল



যে জীবন বকপক্ষীর বুক রিভিউ ।  পাঠ প্রতিক্রিয়া

মধ্যবিত্ত পরিবারের এই গল্পগুলো খুব চেনা। প্রত্যেকটা গল্প আমাদেরই কারও না কারও গল্প। আর এই আমাদের গল্পগুলোই লেখক নিজে বলে গিয়েছেন৷ সমাপ্ত করেছেন আনন্দ বেদনা দিয়ে। উপন্যাসের বর্ণনা, কাহিনী, চরিত্র আমার খুব চেনা অর্থাৎ এমন চরিত্রগুলো আমার জানা। মধ্যবিত্ত সন্তানদের সময়ের আগে বড় হয়ে যেতে হয় এটাই বাস্তবতা। লুনার ভালোবাসা, বিরহ, সহজ সরল বর্ণনাগুলো ভেতরটা নাড়িয়ে দিয়েছে। বাবার শক্ত হাত, মায়ের ভালোবাসা অনুভব করেছি।

আমার কিংবা আমাদের গল্পগুলোই এই উপন্যাস। মেধাবী ছাত্র মনিরের সফলতা, মায়ের জন্য জমিয়ে রাখা অজস্র ভালোবাসা দেখেছি। বড় মেয়ে হয়ে পরিবারের জন্য নিজের ইচ্ছে, ভালো লাগা বিসর্জন দেয়া উপলব্ধি করতে পেরেছি। লেখক দারুণ ভাবে একের পর এক চরিত্রগুলো এনেছেন, বর্ণনা করেছেন। মাহফুজের বর্ণনা চেয়েছিলাম অনেকখানি, লুনা মাহফুজের দূরত্ব কতখানি তাও মেপে নিয়েছি। মেসে একসাথে থাকা রফিক, হেদায়েতের অজানা গল্প জেনে মনে হয়েছে সত্যিই আপনি নিজেকে যখন বড় দুখি, বড্ড অসহায় মনে করবেন তখন সমাজের আরেকজনের গল্প জানার চেষ্টা করুন মনে হবে তার থেকে আপনি অনেক ভালো আছেন। সহজ সরল বর্ণনাগুলো ভেতরটা এতটা দাগ কেটেছে যে এই উপন্যাস পড়তে গিয়ে চোখ ভিজে উঠেছে।

উপন্যাসটায় কোন ত্রুটি চোখে পড়েনি দেখে বুঝলাম লেখক বেশ যত্নে লিখেছেন ।

লেখক সামাজিক পটভূমিতে দারুন লেখেন। বাস্তবতাগুলো চোখের সামনে আরেকবার দেখা, মনের ভেতর থেকে আরেকবার অনুভব করার মতো বর্ণনা। উপন্যাসের চরিত্র, বর্ণনা একদমই কমন আমি এমন চরিত্র আগেও জেনেছি, পড়েছি। এই চেনা চরিত্রগুলো পড়তে গিয়ে মনে হল এভাবে কখনও অনুভব করিনি যেভাবে লেখকের বইটা পড়তে গিয়ে অনুভব করেছি। বর্ণনাগুলো সাদামাটা কিন্তু অসম্ভব রকমের টান অনুভূত হয় যা বহুদিনের জমিয়ে রাখা চোখের জল, বহুদিন কাঁদতে না পারার আকাঙ্ক্ষাটা মিটিয়ে দিবে। সামাজিক ঘরানাটা ধরে রেখে আগামীতে এমন কিছু চাই যেটার চরিত্র, বর্ণনা ভিন্ন ধারার হবে কিন্তু পড়তে গেলে এমনই মনে হবে আমাদেরই গল্প। অনেক শুভকামনা রইলো।

অন্যান্য তথ্যঃ

পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ১২৬
৮০ গ্রাম পারটেক্স কাগজে প্রিন্ট
মুদ্রণ মূল্যঃ ২৫০/- টাকা
বর্তমান বিক্রয় মূল্যঃ ১৫০/- (৪০% ছাড়ে)
প্রাপ্তিস্থান- নহলী বুকস

Facebook